মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

সিটিজেন চার্টার

  • ১। সংশিষ্ট এলাকার দরিদ্র জনগোষ্ঠীর সমন্বয়ে সরকারী পতিত ভূমিতে বনায়ন কার্যক্রম বাস্তবায়ন।

২। সামাজিক বনায়নের সৃজিত বাগান হইতে বিক্রিত বনজদ্রব্যের লভ্যাংশ বিধি মোতাবেক সংশ্লিষ্টগনের মধ্যে বিতরণ 

    ও বিক্রয়ের ব্যবস্থা গ্রহণ।

  • ৩। ট্রি ফার্মিং ফান্ড দ্বারা ২য় আবর্তের বাগান সৃজন ও রক্ষনাবেক্ষনের ব্যবস্থা গ্রহণ।

৪। সামাজিক বনায়ন সংক্রান্ত যে কোন অভিযোগ নিষ্পত্তি করণ।

৫। বিনামূল্যে সরকারী, আধাসরকারী ও স্বায়ত্বশাসিত প্রতিষ্ঠানে বনায়ন কার্যক্রম বাস্তবায়ন।

৬। ব্যক্তিমালিকানাধীন ভূমিতে আবেদনের প্রেক্ষিতে সামাজিক বনায়ন বিধিমালা-২০০৪ অনুযায়ী বনায়নে  

     সহযোগিতা প্রদান

৭। বনজদ্রব্য বিক্রয় করণ।

৮।বন বিভাগের নার্সারীতে বনজ, ফলদ, ঔষধি ও শোভা বর্ধনকারী গাছের চারা সরকারী মূল্য জনগনের মধ্যে 

    বিক্রয়।

৯। জনগণকে বীজ সংগ্রহ, নার্সারী উত্তোলন, বাগান সৃজন, রক্ষণাবেক্ষণ এবং চারা পরিচর্যা    বিষয়ক  

    প্রশিক্ষণ ও কারিগরি পরামর্শ প্রদান।

১০। বন্য প্রাণী লালন-পালনের পজেশন সার্টিফিকেট প্রদানের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ।

১১। অবৈধ বনজদ্রব্য এবং বন্য প্রাণী পাচার রোধে বিধি মোতাবেক কার্যকরী ব্যবস্থা গ্রহণ।

১২। সরকারী, আধাসরকারী জায়গায় অধিগ্রহণ/উন্নয়নমূলক কাজের স্বার্থে গাছ পরিমাপ করত: প্রাক মূল্য

     নির্ধারণ।

১৩। বৃক্ষরোপণ ও পরিচর্যায় জনসাধারণকে উদ্বুদ্ধ করণের লক্ষ্যে উপজেলা পর্যায়ে বৃক্ষমেলার আয়োজন।

১৪। বৃক্ষরোপণে জনগণকে উৎসাহিত করার লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রীর জাতীয় পুরস্কার প্রদানের আবেদন  সংগ্রহ ও

প্রক্রিয়া করণ।

  • ১৫। সরকারী বিধি মোতাবেক করাতকলের লাইসেন্স প্রদান ও নবায়নের ব্যবস্থা গ্রহণ। বন আইন-১৯২৭, বন্যপ্রাণী
  •       (সংরক্ষন) (সংশোধন) আইন- ১৯৭৪, করাতকল লাইসেন্স বিধিমালা -১৯৯৮ ও ইট

পোড়ানো নিয়ন্ত্রণ আইন-১৯৯১ এর বাস্তবায়নে ব্যবস্থা গ্রহণ।


Share with :

Facebook Twitter